শুক্রবার - কলকাতা



রুদ্রনীল এর সাথে মুখোমুখি

Written by Sayantan Halder, Posted on 2013-04-15,01:58:06 a

werbangali interview,rudranil interview,rudranil ghosh interview,interview of rudranil ghosh

উই আর বাঙালী - এক্কেবারে শুরুতেই একটা প্রশ্ন না করে পারছি না, এই গরমে 'কুল' থাকছেন কি করে? না কি এত 'ফ্যান' যখন রয়েছে আর চাপ নেওয়ার কিছু নেই, তাই তো?
রুদ্রনীল - দেখো, যে কোন পরিবেশে যে কোনও জায়গায় শ্যুট্ করতে করতে, ধর যেটা আমাদের পছন্দের একটা বিষয়, সেটা প্রচন্ড গরমে শুট করতে হয়, প্রচন্ড ঠান্ডাতেও শ্যুট্ করতে হয়। প্রফেসনাল লাইফে এরকম কষ্ট করতে করতে, যেটা অভিনয়ের সাথে জড়িয়ে থাকা ভালোবাসার একটা কাজ, তাই এই এফেক্ট পারসোনাল লাইফে ও পড়েছে, তাই গরম লাগলে এখন বিরক্ত হই না, ঠান্ডা লাগলেও কুঁকড়াই না।

উই আর বাঙালী - এই কঠোর রৌদ্রে দুটি শব্দের চাহিদা খুব নিল রৌদ্র আর রুদ্রনীল, অস্বীকার করতে পারেন ?
রুদ্রনীল - অস্বীকার করার দরকার নেই,থ্যঙ্ক্ গড্, যতদিন পর্যন্ত মানুষ এবং পরিচালকদের আমাকে প্রয়োজন হবে, শব্দ দুটোর চাহিদা থেকেই যাবে।

উই আর বাঙালী - 'এলার চার অধ্যায়' দেখলাম, এক্কেবারে আলাদা চরিত্র,  ২০১২ সালে দাঁড়িয়ে আঠারো দশকের একটি চরিত্রকে ফুটিয়ে তোলার অভিজ্ঞতাটা কেমন ?
রুদ্রনীল - একে রবীন্দ্রনাথের চরিত্রে অভিনয় করা খুবই কঠিন; সেই সময় মানুষের চলা-ফেরা,কথা-বার্তা, চলন-বলন যেটাকে বলে , যেটা অভিনেতার কাজ, সেই পিরিয়ডে ফিরে গিয়ে আমরা ওই মানুষগুলোকে দেখি বা দেখে নকল করি মানুষ গুলো কে; কি হতে পারে, কোন সময়ে সে দাঁড়িয়ে আছে, কোন আর্থিক অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছে, পরিস্থিতিটা আমরা বুঝতে পারি, কিন্তু কোন সময়টা আমার হাতে ছিল না। ফলে আর কি রাবীন্দ্রিক কথাবার্তা বলার ধরন এবং রবীন্দ্র সময়ে যা যা হয়ে এসছে, সেই সময়ে পুরোনো সিনেমা দেখে চলা ফেরা , হাটা চলা যে বুঝতে পাড়া যায়। অভিনেতারা সেই সময় মানুষের নকল করে, তাদের কে নকল করে অভিনয় করে। সেই হাটাচলাটাকে কিছুটা লক্ষ্য রেখে, একোর্ডিং টু ক্যারেক্টার অভিনয় করে গেছি।

উই আর বাঙালী - এর জন্য কী আলাদা করে ওয়ার্কশপ করেছেন?
রুদ্রনীল - না প্রয়োজন পড়েনি,আমি একজন কমপ্লিট্ এক্টর্ হতে চাই, আর একজন কমপ্লিট্ এক্টর্ হওয়া মানে ব্যাঙ্ক হওয়া,  আপনার যত রকমের নোট দরকার আপনি বার করে নেবেন। আমায় স্টক্ নিয়ে রেডি থাকতে হবে।

উই আর বাঙালী - আচ্ছা ছোট পর্দায় অভিনয় করতে করতে কখনো ভেবেছিলেন যে পোস্টারে শুধুমাত্র আপনার ছবি দেখে একদিন লোকে হলে ঢুকবে ?
রুদ্রনীল - হ্যা (বেশ কনফিডেন্টলি)

উই আর বাঙালী - দিন প্রতিদিন,রিফিউজি, কালের রাখাল, ব্যোমকেশ, জিও কাকা, চ্যাপলিন থেকে বেডরুম, প্রতিটি সিনেমায় রুদ্রনীল - আপনার আলাদা আলাদা চরিত্র, পরবর্তী চরিত্রটা কি হতে চলেছে? আভাস দেওয়া যাবে?
আমি জানি না, আমি উইস্ করছি যে আমি যেকোনো চরিত্রে মানিয়ে যেতে পারব।ক্যারেকটারটা ডিফরেন্ট ডাউন হবে, মুখ টা খুব ইজি হয়ে আমি কি এক্সপ্রেস করতে পারছি বা পারছি না সেটা চোখ দিয়ে সেটা এক্সপ্রেস করে দেওয়ার জন্য।

উই আর বাঙালী - অনেকদিন আপনাকে কমার্সিয়াল সিনেমায় দেখছিনা; ফেরার ইচ্ছে আছে?
রুদ্রনীল - কমার্সিয়াল সিনেমাটা বড্ড বেশী করে ইমোশনাল হয়ে যাচ্ছে সেই জন্য কমার্সিয়াল টা হচ্ছে না, 'কমার' টা পড়ে আছে আর 'সিয়াল'-টা পালিয়ে গেছে।

উই আর বাঙালী - আপনার জীবনের টার্নিং পয়েন্ট বলে আপনি কোনটা মনে করেন?
রুদ্রনীল - কাঁটাতার, বাপ্পাদিত্য বন্দোপাধ্যায় এর।

উই আর বাঙালী - আপনার এই সফলতাটাকে কোন স্পেশাল মানুষকে ডেডিকেট্ করতে চান?
রুদ্রনীল - ঠিক যারা আমায় বলত, এর দ্বারা অভিনয়টা হবে না ।(ছোট্টো হেসে)

উই আর বাঙালী - বলিউডে অভিনয় করতে চান?
রুদ্রনীল - এটা বলিউডের হিসেব করার দরকার, আমি রেডি রয়েছি, বন্দুক-কার্তুজ নিয়ে, আমাকে যে ব্যাবহার করতে পারবে, সেটা তার যোগ্যতার ব্যাপার, আমার নয়।

উই আর বাঙালী - অবসর সময় কী করেন?
রুদ্রনীল - ঘুমোই।

উই আর বাঙালী - ইন্ডাস্ট্রিতে আপনার সবচেয়ে কাছের বন্ধু কে?
রুদ্রনীল - পরম্ব্রত আর কাঞ্চণ।

উই আর বাঙালী - চ্যাপলিন, বেডরুম পর পর আপনার অসাধারণ অভিনয় এবং সাফল্য, এর পর কী আপনার ফোনটা  কখনও ফ্রি ছিল?
রুদ্রনীল - আমি বিলিভ-ই করিনা সাফল্যে। মন দিয়ে কাজ করা এক ব্যাপার আর জনপ্রিয়তা পাওয়া আরেক ব্যাপার। জনপ্রিয়তার সাথে যোগ্যতার কোনো সম্পর্ক নেই। ওটা ঘটে যায়। মে বি।

উই আর বাঙালী - বলিউড জয় করতে নামা পাওলি-র সাথে আপনার অভিনয় করার অভিজ্ঞতাটা কেমন?
রুদ্রনীল - বলিউড কে জয় করেছে আমি জানি না। বলিউড জয় করতে নেমেছে বলে আমার মনে হয় না। আমি ওকে যতদুর জানি, ও একজন সেন্সিবেল্ অ্যাকটর্ ,যেমন-পরম্ব্রত, প্রশংসনীয় হয়েছে কাজ করে। পাওলি অভিনয় করতে গেছে, প্রশংসাটা এখনও পর্যন্ত পায়নি। আমি কাজ করেছি একটি হিন্দি ছবিতে, এই সামনেই রিলিজ্ হয়েছে, নাসিরুদ্দিন শাহ্ আমার বেশ প্রশংসা করেছেন।রাজেশ্ শর্মা দাপিয়ে অভিনয় করছেন,প্রশংসা পাচ্ছেন বলিউডে। ইট্স সো সিম্পল্। একজন আক্টর, তার কাজ অ্যাক্টিং করা। আমি অন্তত হলিউড, বলিউড, টলিউড নিয়ে ভাবি না। বলিউড ট ভালো লাগে একটাই কারোনে, একই কাজ করে ওখানে অনেক বেশি পেমেন্ট।

উই আর বাঙালী - আচ্ছা ছোটবেলায় যখন স্বপ্ন দেখতেন তখন ভেবেছিলেন যে আপনি নায়ক হবেন? মানে আপনার স্বপ্নটা কি ছিল?
রুদ্রনীল - ছোটোবেলায়, প্রত্যেক ছেলে চায় বাবা-মা যে কারনে ধোলাই দেয় তার উল্টো কাজটা করতে। ছোটোবেলায় প্রত্যেকে ভাবে যে সে হয় পাইলট হবে, না হয় বাস চালাবে, না হয় ডাকাত হবে।আমিও সেরকম ভাবতাম।

উই আর বাঙালী - কবে বিয়ে করছেন?
রুদ্রনীল - যে দিন আমার ব্যাঙ্ক এ ডিভোর্স দেওয়ার মত টাকাটা রেডি হয়ে যাবে।

উই আর বাঙালী - আপনাকে আর তনুশ্রীদি কে একসাথে জড়িয়ে আলোচনা হলে আপনি কি বিরক্ত হন? না কি কেয়ার-ই করেন না?
না, গর্ব হয়, যে আরও ২৫ টা বান্ধবীর সাথে আর একটা বান্ধবী জুড়ল।

উই আর বাঙালী - আপনার যে ফেসবুকে এ্যকাউন্ট টা রয়েছে সেটা অরিজিনাল?
রুদ্রনীল - হ্যাঁ।

উই আর বাঙালী - আপনার প্রিয় খাবার কী?
রুদ্রনীল - চিংড়ী মাছের ভটকা

উই আর বাঙালী - আপনাকে যদি এমন কোনো সিনেমা যেটাকে নায়ক হিসাবে আবার রিমেক করতে বলা হয় তাহলে আপনি কোনটাকে করবেন?
রুদ্রনীল - খোকাবাবুর প্রত্যাবর্তন, কারন উত্তম কুমারের অভিনয় ওটায় আমার জঘণ্য লেগেছে, পারেননি উনি।

উই আর বাঙালী - ভুতের রাজা যদি আপনাকে তিনটি বর দিতে চান, তাহলে কী কী চাইবেন ?
রুদ্রনীল - ইলেকশন্ তুলে দাও, হিংসা তুলে দাও, ব্যাঙ্ক একাউন্ট তুলে দাও।

উই আর বাঙালী - আপনার জীবনের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর স্মৃতি কোনটি?
রুদ্রনীল - আমি একটু নিরুত্তাপ প্রকৃতির লোক আর কি। সামনে বোম ফাটলে, হ্যাঁ এটা হওয়ারই ছিল; আবার একশো টাকার নোট কুড়িয়ে পেলে, এ আমি না পেলে কেউ তো নিশ্চয়ই পেত।

ভয়ঙ্কর বলে আমার কাছে এক্টাই রয়েছে সেটা আর কি - বার বার আমাকে যখন সর্ট দিতে হয় যে রোল গুলো আমি কড়ি। সেক্ষেত্রে রিফিউজির সময় আমি একটা সর্ট দিয়েছিলাম, ক্রেনে ঝুলতে ঝুলতে, ষাট ফুট দুরত্ব থেকে ঝুলছিলাম খিদির পুর পোর্ট এ। এন্ড সেফটিক বেল্ট গুলো সেরম ভাবে ঠিক সচেতন ছিল না , প্রত্যেক মুহুর্তে আমার ভয় ছিল পড়লে তো মারা যাব আর সিনেমা টা ও আটকে যাবে।
উই আর বাঙালী - আপনি আর পরমব্রতদা মিলে একটা প্রডাকশন্ স্টার্ট করেছেন, এরপর কি ডিরেকশন্ নিয়ে চিন্তা-ভাবনা আছে?
রুদ্রনীল - (মাথা নেড়ে হ্যা)

উই আর বাঙালী - আচ্ছা আপনাকে দুটি করে অপ্সান দেব,যে কোনো একটা করে বাছাই করবেন।
উত্তম কুমার না সৌমিত্র?
রুদ্রনীল - সৌমিত্র
উই আর বাঙালী - দেব না জিত

রুদ্রনীল - জিত
উই আর বাঙালী - রোম্যান্টিক্ ফিল্ম না কমেডি ফিল্ম?

কমেডি ফিল্ম
উই আর বাঙালী - শাহরুখ্ না অমিতাভ?

রুদ্রনীল - শাহরুখ্
উই আর বাঙালী - কে-কে-আর না পুনে?

রুদ্রনীল - কে-কে-আর
উই আর বাঙালী - বেডরুম না চ্যাপলিন?
রুদ্রনীল - চ্যাপলিন
উই আর বাঙালী - এক্কেবারে শেষ প্রশ্ন, "উই আর বাঙালী - মোদের গরব্ মোদের আশা, আ মরি বাংলা ভাষা", নিজেকে বাঙালী মনে করে কতটা গর্ব  অনুভব করেন?
রুদ্রনীল - একটা কারনে আমি গর্বিত যে আমার টাইটেল-টার জন্য আমার বাবার সম্পত্তি আমিই পাবো,আর কেউ পাবে না; এর বাইরে অন্য কোন গর্বই নেই। এক জাতি নিজেদের মধ্যে কোলাকুলি করলে কিস্সু হয় না। 'ঘাড়' এবং 'কোল' টা বাড়িয়ে দিতে হয় সবাই এর মধ্যে। নিজেদের মধ্যে গর্ব করায় সেকিউলার টেন্ডেন্সি বা সাইকোলোজি গ্রো করে। আমি ভারতীয়,এটাই আমার পরিচয়।



আমাদের উপপদ এর সরঞ্জাম গুলি

আপনার মন্তব্য